ঢাকা, সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪
আপডেট : ১ এপ্রিল, ২০২৪ ১৮:১৫

আওয়ামী লীগ নেতাকে জনতার গণধোলাই

শেরপুর প্রতিনিধি
আওয়ামী লীগ নেতাকে জনতার গণধোলাই

 

শেরপুরে একটি বেসরকারি সংস্থার ন্যায্যমূল্যের পণ্য ছলচাতুরির মাধ্যমে ভোক্তাদের কাছ থেকে বেশী টাকা আদায় করায় উত্তেজিত জনতার হাতে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন এক আওয়ামী লীগ নেতা। ওই ব্যক্তির নাম রবিউল ইসলাম রবি। তিনি দুই নম্বর নকলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

স্থানীয়রা জানান, রোববার বিকেলে জেলার নকলা উপজেলার ধনাকুশা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে রমজান উপলক্ষে আল নাসার ফাউন্ডেশন ন্যায্যমূল্যে পণ্য সামগ্রী সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয়। এজন্য নানা শ্রেণি পেশার মানুষ রবির সহযোগিতা চান। কিন্তু রবি আয়োজকদের ন্যায্যমূল্যের কার্ড জনপ্রতি ২০ টাকার বিনিময়ে বিতরণ করে। ৬০০ গ্রাহকের কাছে কার্ড বিতরণের কথা থাকলেও তিনি অন্তত ১৬০০ গ্রাহকের কাছে ২০ টাকার বিনিময়ে ওইসব কার্ড বিতরণ করেন।

এনিয়ে স্থানীয়রা ক্ষুদ্ধ হয়ে অবরোধ করে রবিকে বেদম মারপিট করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উৎসুক জনতার কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করে হেফাজতে নেয়। রবিউল ইসলাম রবি বলেন, আয়োজকদের প্রতিনিধি কবিরের কথাতেই জনপ্রতি কার্ডের জন্য ২০ টাকা করে ৮০ হাজার টাকা উত্তোলন করি। যারা টাকা তুলেছে তাদের খরচ বাবদ ২০ হাজার টাকা দিয়েছি। আর ১০ হাজার টাকা কবিরকে দেই। বাকি ৫০ হাজার আমার কাছে আছে। এর মধ্যে আরও ২০ হাজার টাকা কবিরকে দেয়ার কথা রয়েছে। এরইমধ্যে আজকে এই ঘটনা।

আল নাসার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম বলেন, আমাদের দুজন নকলার প্রতিনিধি স্থানীয় আওয়ামী লীগের কাছে সহযোগিতা কামনা করেন। কিন্তু সহযোগিতা করতে গিয়ে টাকা নিচ্ছে এটা আমরা জানি না।

তিনি আরও বলেন, কার্ড বিতরণে টাকা নেয়ার সুযোগ নেই। কিন্তু পরে জানতে পারি রবি গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রতি কার্ড ২০ টাকা করে নিয়েছেন। এটা অন্যায় এবং অপরাধ।

নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ বলেন, এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগ বিব্রত। অবশ্যই নিয়ম অনুযায়ী সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সোমবার সকালে নকলা থানার ওসি কাদের মিয়া বলেন, আমরা সংবাদ পাওয়ার পর দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বিক্ষুব্ধ জনতার কাছ থেকে রবিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।

উপরে