ঢাকা, সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২
আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ ১৬:৪৬

‘ইসি গঠনে বিলম্ব হলেও আইনে শূন্যতা সৃষ্টি হবে না’

অনলাইন ডেস্ক
‘ইসি গঠনে বিলম্ব হলেও আইনে শূন্যতা সৃষ্টি হবে না’


আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হলেও আইন অনুযায়ী কোনো শূন্যতা সৃষ্টি হবে না। সংবিধানে কিংবা আইনে এ ধরনের কোনো শূন্যতার কথা নাই।’

রোববার বেলা ১১টায় ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা’ খচিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ (বাংলা পাঠ) এবং জাতীয় সংসদের নির্বাচনী এলাকার সীমানা নির্ধারণ আইন ২০২১ এর মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠান তিনি এ কথা বলেন।

সোমবার বর্তমান কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে, এ সময়ের মধ্যে নতুন কমিশন গঠিত না হলে আইনে শূন্যতা হিসাবে গণ্য হবে না বলে জানান আইনমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, ‘মেয়াদ শেষ হলে তারা অফিসিয়াল কোনো দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। কারণ সংবিধানে সুনির্দিষ্টাভাবে বলা আছে তারা পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করবেন। পাঁচ বছর শেষ হয়ে গেলে এমন কথা নাই যে যারা স্থলাভিষিক্ত হবেন তারা না আসা পর্যন্ত দায়িত্বে থাকবেন। এই সময়ে তো ইলেকশন কমিশন বন্ধ হয়ে যাবে না। অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ দায়িত্ব পালন করবে।’

কিন্তু নতুন নির্বাচন কমিশন আসলেই কোনো নির্বাচনের বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে পারবে বলে জানান মন্ত্রী।

বিএনপি কোনো আলোচনায় অংশ না নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের কথাই হচ্ছে সংলাপ। সেখানে প্রত্যেকবারই কোনো পদক্ষেপকে যদি তারা ইতিবাচকভাবে না নিয়ে নেতিবাচকভাবে নেয় তাহলে আমার মনে হয় জনগণ সেটিকে গণতান্ত্রিক বলে মনে করবে না।

উপরে