ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ আগস্ট, ২০২১
আপডেট : ৫ জুন, ২০২১ ১২:৪৬

বাজেটে গরিব মানুষের সুযােগ-সুবিধা নেই : ন্যাপ

প্রতিদিন ডেস্ক
বাজেটে গরিব মানুষের সুযােগ-সুবিধা নেই : ন্যাপ

গত দেড় বছরে দারিদ্র্যের হার ৩০ শতাংশ ছাড়িয়েছে। ২০১৯ সালে এই হার ছিল ২০ দশমিক ৫ শতাংশ । শহর এবং গ্রামের নতুন দরিদ্রদের জন্য কোনাে কর্মসূচি এবং তাদের কাজে ফেরানোর বাস্তব কোন পদক্ষেপ নেই । প্রস্তাবিত ৬ লাখ ৬৮১ কোটি টাকার বাজেটে গরিব, সাধারণ ও মধ্যবিত্ত মানুষের সুযােগ-সুবিধার নিশ্চয়তা নেই।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রস্তাবিত বাজেট প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) আয়ােজিত মানববন্ধনে বক্তারা এ কথা বলেন।

তারা বলেন, করােনকালেও যে কৃষকেরা খাদ্য উৎপাদন এবং সরবরাহ করে মানুষকে বাঁচিয়ে রেখেছেন, সেই কৃষিখাতে ভর্তুকি পূর্ব অবস্থায় ৯ হাজার ৫০০ কোটি টাকায় রয়ে গেছে । বাস্তবে মুদ্রাস্ফীতির বিবেচনায় কৃষিতে ভর্তুকি কমে গেছে। প্রস্তাবিত বাজেটের আয়ের বৈষম্য, সম্পদের বৈষম্য ও ভােগের বৈষম্য দূরীকরণের কোন কথা নেই।

বক্তারা বলেন, অপরদিকে ১০ শতাংশ কর দিয়ে কালাে টাকা সাদা করার সুযােগ বন্ধ করা হয়নি। সার্বিকভাবে ধনী আরও ধনী হবে, গরিব আরও গরিব হবে; এই অবস্থা পরিবর্তনের কোন সুস্পষ্ট দিকনির্দেশনা পরিলক্ষিত হয়নি। প্রস্তাবিত বাজেটে মাথাপিছু আয় ২ হাজার ৪৬২ ডলার (প্রায় ২ লাখ ১০ হাজার টাকা) । কতজন গরিব ও সাধারণ মানুষ মাথাপিছু আয়ের এই অঙ্কের কাছাকাছি বুঝতে পারবে?

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ন্যাপের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য প্রবীণ নেতা অ্যাডভােকেট এমএ ওহাব। এতে বক্তব্য রাখেন ন্যাপ নেতা পরিতােষ দেবনাথ, অ্যাডভােকেট আমিনুল ইসলাম, হাসান কমরুন, নাসিমা হক রুবী, মােস্তফা মাহমুদ, অ্যাডভােকেট আবদুল মালেক, সােহেল উদ্দিন তালুকদার টুটুল, গােলাম নবী মিঠু প্রমুখ।

উপরে