ঢাকা, রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩
আপডেট : ২১ জানুয়ারি, ২০২৩ ১৮:২৭

তাদের আনন্দ পাওয়ার সুযোগ দিতে চাইনি: কঙ্গনা

বিনোদন প্রতিবেদক
তাদের আনন্দ পাওয়ার সুযোগ দিতে চাইনি: কঙ্গনা


বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি কুইন’ বলা হয় কঙ্গনা রানাউতকে। অভিনয়ের সুবাদে সর্বদা প্রশংসিত হলেও ব্যক্তিগত আচরণে বরাবরই সমালোচনার মুখে পড়েন। অভিনয়ের পাশাপাশি ইদানীং পরিচালনা ও প্রযোজনাতেও দেখা যাচ্ছে তাকে। ‘মণিকর্ণিকা’র পর ‘ইমার্জেন্সি’তেও লগ্নি করেছেন কঙ্গনা। আর এজন্য নিজের সকল সম্পত্তি বন্ধক রাখতে হয়েছে তাকে।
সম্প্রতি ‘ইমার্জেন্সি’ ছবির শুটিং শেষ করেছেন অভিনেত্রী। ছবিটির প্রযোজনায় রয়েছে কঙ্গনারই প্রযোজনা সংস্থা ‘মণিকর্ণিকা ফিল্মস’। ছবির শুটিং শেষ হওয়ার পর নিজের নানা অভিজ্ঞতার কথা সামাজিক মাধ্যমে ‍তুলে ধরেন ‘কুইন’ খ্যাত এ অভিনেত্রী। সেখানে শুটিং সেটের কিছু ছবিও পোস্ট করেন।

কঙ্গনা জানান, এই ছবি করতে গিয়ে একাধিক বাধার সম্মুখীন হয়েছেন তিনি। ডেঙ্গুতে ভুগেছেন, শরীর অসুস্থ থাকাকালীনও শুটিং করতে হয়েছে তাকে। এমনকি ছবির খরচ বহন করতে গিয়ে তাকে নিজের সব সম্পত্তি বন্ধক রাখতে হয়েছে বলেও দাবি পদ্মশ্রী পাওয়া অভিনেত্রীর। নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানাতে গিয়ে কঙ্গনা এ-ও লেখেন, ‘আগেই এইসব কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় বলিনি, কারণ কিছু মানুষ আমার ব্যর্থতা দেখতে চেয়েছিল, তাদের আনন্দ পাওয়ার সুযোগ দিতে চাইনি।’ তার মতে, নিজের স্বপ্ন পূরণের জন্য কঠিন পরিশ্রম যথেষ্ট নয়। তবে বারবার বাধা পেয়ে, ভেঙেচুরে গিয়েও যে তিনি নতুন করে নিজেকে খুঁজে পেয়েছেন, সেজন্য জীবনের কাছে কৃতজ্ঞ জাতীয় পুরস্কারজয়ী এ অভিনেত্রী।

উল্লেখ্য, ১৯৭৫ সালের ২৫ জুন থেকে ১৯৭৭ সালের ২১ মার্চ পর্যন্ত টানা ২১ মাস ভারতে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছিল। সেই সময় প্রধানমন্ত্রী ছিলেন ইন্দিরা গান্ধী। ‘ইমার্জেন্সি’ ছবিতে সেই সময়টাই তুলে ধরা হয়েছে। এতে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন অনুপম খের, শ্রেয়াস তালপাড়ে, মাহিমা চৌধুরী, মিলিন্দ সোমন, সতীশ কৌশিক প্রমুখ।

উপরে