ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৭:২৪

ওটিটিতে বাঁধনের অভিষেক, আসছে ‘গুটি’

বিনোদন প্রতিবেদক
ওটিটিতে বাঁধনের অভিষেক, আসছে ‘গুটি’


‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমা দিয়ে ইতিহাসের পাতায় নতুন করে নাম লিখিয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। এরপর নাম লেখালেন বলিউডে। সব মিলিয়ে গেল বছর থেকে তুমুল আলোচনায় রয়েছেন এ তারকা। এবার প্রথমবারের মত ওটিটিতে অভিষেক হতে যাচ্ছে বাঁধনের।
চরকির প্রযোজনায় নির্মিত হতে যাচ্ছে নতুন সিরিজ ‘গুটি’। ‘বলি’ খ্যাত শঙ্খ দাসগুপ্তের পরিচালনায় সিরিজটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করবেন বাঁধন। তাকে দেখা যাবে একজন ড্রাগ ডিলারের চরিত্রে।
দেশীয় ওটিটিতে এটাই প্রথম কাজ আজমেরী হক বাঁধন-এর। তিনি বলেন, ‘কাজটা আমার জন্য খুব চ্যালেঞ্জিং হতে যাচ্ছে। কতটা চ্যালেঞ্জিং সেটা আসলে দর্শক দেখলেই বুঝতে পারবে। আমি আসলে খুব খুশি আর কৃতজ্ঞ যে চরকি নারী চরিত্র প্রধান কাজ প্রডিউস করেছে।‘
সিরিজটির গল্প প্রসঙ্গে বাঁধন বলেন, ‘গুটি -র গল্পটা শঙ্খ খুব দুর্দান্তভাবে সাজিয়েছেন। তিনি খুবই ব্রিলিয়ান্ট একজন নির্মাতা। একদম ভিন্ন প্লট, ভিন্ন চরিত্র, ভিন্ন ধরনের একটা গল্প তিনি ফুটায় তুলতে চেয়েছেন। এখানে আমি সুলতানা নামে একজন ড্রাগ ডিলারের চরিত্রে কাজ করেছি। চরিত্রটা নিয়ে শঙ্খর সাথে আমার দীর্ঘদিন ধরে আলাপ চলেছে। আমি এই চরিত্রটা অনেকদিন ধরে নিজের মধ্যে ধারণ করছি। ইভেন একদম প্রথমে আমার যে লুক টেস্ট হয়েছিল সেটার কস্টিউম পুরা আমি করেছিলাম। কি ওড়না পরবো, কি রঙের কাপড় পরবো, কোনটা পরলে একদম ওই ক্যারেক্টারের মতো লাগবে এইগুলা নিয়ে পরিচালকের সাথে আমার ব্যাপক আলোচনা হয়েছে।’

বাঁধন বলেন, ‘সিরিজে কাস্টিং কিন্তু খুব ইন্টারেস্টিং। আমরা সবাই নিয়মিত একসাথে বসে রিহার্সেল করছি। রিহার্সেলটা প্রপার হলে শ্যুটিংয়ে গিয়ে সবার অনেক কষ্ট কমে যায়।’

দর্শকদের উদ্দেশ্যে বাঁধন বলেন, ‘বাংলাদেশে ফিমেল লিডের কাজ চলে না, এই কথাটা আসলে শুনতে চাই না। কারণ এই কথাটা আমি যখন শুনেছি তখন প্রচন্ড হার্ট হয়েছি। তবে আমি বিশ্বাস করি আগামী ১-২ বছরের মধ্যে এই ধারণার পরিবর্তন হবে। আমরা আমাদের কাজ দিয়েই এই চিন্তার পরিবর্তন করতে পারবো। দর্শককেও নতুন কিছু দিতে পারবো।’
শুটিং-এ যাওয়ার আগে এখন চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। কীভাবে পুরো দলকে নিয়ে প্রস্তুত হচ্ছেন পরিচালক এ বিষয়ে শঙ্খ দাসগুপ্ত বলেন, ‘চরকির সাথে এটাই আমার প্রথম কাজ। কাজটার জন্য খুব উন্মুখ হয়ে আছি। এখন পর্যন্ত আমাদের স্ক্রিপ্টের ৭ নম্বর ড্রাফট হয়েছে। এখন কাস্টিংদের নিয়ে প্রতিদিন রিডিং রিহাসসেল হচ্ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যে যে অঞ্চলগুলোতে শ্যুট করবো সেখানকার লোকাল আর্টিস্টদের কাস্ট করা হয়েছে। রিজিওনাল জায়গা থেকেও যেনো এর একটা আলাদা এক্সেপ্টেন্স তৈরি হয় সেটাও আমরা খেয়াল রাখছি। এখন টেকনিক্যালি কাজটাকে কতটা ডিভাইস করা যায় সেইদিকেই আমাদের সবার খেয়াল।’

জানা গেছে, আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে সিরিজটির শুটিং শুরু হবে। সেখানে তিনদিনের দৃশ্যধারণ শেষে কুমিল্লায় ৮ দিন এবং এরপর ঢাকার বিভিন্ন লোকেশনে এক সপ্তাহ শুটিং চলবে।

উপরে