ঢাকা, সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪
আপডেট : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১৬:৩৩

পিরোজপুরে এক পরিবারের সবাইকে কুপিয়ে জখম, নারীদের শ্লীলতাহানি

পিরোজপুর সংবাদদাতা
পিরোজপুরে এক পরিবারের সবাইকে কুপিয়ে জখম, নারীদের শ্লীলতাহানি


পিরোজপুর সদর থানাধীন দক্ষিণ গাজীপুর এলাকায় এক পরিবারের সকল সদস্যকে কুপিয়ে জখম ও শ্লীলতাহানী করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে গত ০২/০২/২০২৪ খ্রিঃ তারিখ শনিবার। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভিক্টিম তৈয়ব আলী বিশ্বাসের সাথে মোঃ আঃ রাজ্জাক বিশ্বাসের তর্ক-বিতর্ক হয় এক পর্যায় মোঃ আঃ রাজ্জাক বিশ্বাস (৪৫) ও তার ছেলে মোঃ শাকিল বিশ্বাস (২০) দুজন মিলে তৈয়ব আলী বিশ্বাসকে মারধর করে। এরপর তৈয়ব আলী বিশ্বাস পিরোজপুর সদর হাসপাতালে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা করান। চিকিৎসা শেষে পুনঃরায় তার দুই ছেলে নাসিম বিশ্বাস(১৯), বায়েজিদ বিশ্বাস (২০) ও মেয়ে তামান্না আক্তারকে নিয়ে বাড়ী ফেরার পথে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ওঁৎ পেতে থাকা মোঃ শাকিল বিশ্বাস (২০), মোঃ আঃ রাজ্জাক বিশ্বাস (৪৫), মোঃ ইলিয়াছ বিশ্বাস (৪০), ইয়াছিন বিশ্বাস (৪৬), লিটন বিশ্বাস ও হাফিজা বেগম দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে ভিক্টিম পরিবারের  উপর হামলা চালায়। তারা নাসিম বিশ্বাস (১৯) ও তার ভাই বায়েজিদ বিশ্বাস (২০) কে এলোপাতারী ভাবে ধারালো দাও দিয়ে কোপাতে থাকে এতে নাসিম বিশ্বাসের মাথায় ও ঘাড়ে গুরুতর ভাবে জখম হয় এবং বায়েজিদ বিশ্বাস গুরুতরভাবে আহত হয়। এসময়ে তারা তামান্না আক্তার কে মারধর ও শ্লীলতাহানী করে। পরবর্তীতে স্থানীয় কতিপয় লোকজন ভিক্টিমদের উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। নাসিম বিশ্বাসের অবস্থা গুরুতর আশংকা জনক হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রেফার করে। এ বিষয়ে পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আসিকুজ্জামান জানান এসংক্রান্তে একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে ও এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

উপরে