ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪
আপডেট : ৪ এপ্রিল, ২০২৪ ১৭:৪২
রুমা-থানচিতে ব্যাংক ডাকাতি

কুকি-চিনের সাথে সংলাপ বন্ধের ঘোষণা শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটির

নিজস্ব প্রতিবেদক
কুকি-চিনের সাথে সংলাপ বন্ধের ঘোষণা শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটির


বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে ডাকাতি, অস্ত্র লুট ও সোনালী ব্যাংক ম্যানেজারকে অপহরণের ঘটনায় পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) ওপর ক্ষুব্ধ শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটি। এ কারণে কেএনএফের সঙ্গে কোনো ধরনের সংলাপ ও আলোচনায় না বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনটি।

বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের কনফারেন্স রুমে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান কমিটির আহ্বায়ক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা। সংবাদ সম্মেলনে তিনি লিখিত বিবৃতিতে বলেন, গত ২ এপ্রিল রুমায় কেএনএফ পবিত্র রমজান মাসে তারাবির নামাজিদের ওপর হামলা, সরকারি কর্মকর্তা ও পথচারীদের জিম্মি, অর্থ লুটের উদ্দেশ্যে সোনালী ব্যাংকে হামলা, ব্যাংক ম্যানেজারকে অপহরণ, পুলিশ ও আনসার বাহিনীর ১৪টি অস্ত্র লুট করে নেয়। ৩ এপ্রিল থানচি উপজেলায় স্থানীয়দের জিম্মি করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ ও দুটি ব্যাংক লুট করার মতো হীন কাজ করে। তাদের বিরুদ্ধে শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটির পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

এ ছাড়া সম্মেলনে তিনি দীর্ঘদিন ধরে কেএনএফ ও শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটির সঙ্গে আলোচনা এবং তাদের সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটির বর্তমান অবস্থাও তুলে ধরেন।

সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্য গত বছরের ২৯ মে বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর নেতাদের উপস্থিতিতে জেলার অরুণ সারকী টাউন হলে মতবিনিময় সভা আয়োজন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত বছরের ৯ জুন স্থানীয় নেতাদের সমন্বয়ে ১৮ সদস্য বিশিষ্ট একটি শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটি গঠন করা হয়।

উপরে