ঢাকা, সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪
আপডেট : ১৩ মার্চ, ২০২৩ ১৭:৫৮

ডিএম‌পি‌তে আড়াই হাজার নারী সদস‌্য কাজ কর‌ছেন: ডিএম‌পি কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক
ডিএম‌পি‌তে আড়াই হাজার নারী সদস‌্য কাজ কর‌ছেন: ডিএম‌পি কমিশনার

 

ঢাকা ‌মে‌ট্রোপ‌লিটন পুলিশে (ডিএমপি) আড়াই হাজা‌রের ম‌তো নারী সদস্য আছেন। বেশির ভাগই কাজ করছেন ভিকটিম সাপোর্ট ও উইমেন সাপোর্ট সেন্টারে। আইনি সহায়তার পাশাপাশি ভুক্তভোগী নারীদের মানসিক সহায়তাও দিচ্ছেন এসব নারী পুলিশ সদস্য ব‌লে জা‌নি‌য়ে‌ছেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক।
সোমবার দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত এক অনুষ্ঠা‌নে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন। 'ডিজিটাল প্রযুক্তি উদ্ভাবন জেন্ডার বৈষম্য করবে নিরসন’ প্রতিপাদ্যে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠানের আ‌য়োজন করা হয়।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার ও উইমেন সাপোর্ট সেন্টারে শুধুমাত্র নারী কর্মকর্তারা কাজ করছেন। নির্যাতিত নারীদের মানসিক ও আইনগত সেবাসহ বিভিন্নভাবে সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছে নারী পুলিশ সদস্যরা। বাংলাদেশ পুলিশের নারীরা দেশ, মেধা ও যোগ্যতার সক্ষমতা রাখছে। নারীরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রেখে এগিয়ে যাচ্ছে।
বাংলাদেশ পুলিশে এখন ১০ শতাংশ নারী কর্মরত জা‌নি‌য়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, আমাদের মেয়েরা অনেক মানসিক সীমাবদ্ধ নিয়ে কাজ করে। তাদের মফস্বলে পোস্টিং দিলে যেতে চায় না, ঢাকায় থাকতে চায়। অনেক ক্ষেত্রে নাইট ডিউটি দিলে নারীরা অনীহা প্রকাশ করে। এই মানসিক প্রতিবন্ধকতা দূর করে এগিয়ে যেতে হবে। খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমানে নারীরা যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে অদূর ভবিষ্যতে দেশে নির্দিষ্ট করে আলাদাভাবে নারী দিবস পালনের দরকার হবে না। প্রযুক্তিগত লেখাপড়াতেও আমাদের মেয়েরা অনেক এগিয়ে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি মো. মনিরুল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা সেন্টার ফর জেন্ডার অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের পরিচালক প্রফেসর ড. তানিতা হক।

উপরে