ঢাকা, শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২০
আপডেট : ২০ অক্টোবর, ২০২০ ২১:৩২

ভুয়া মামলায় আইনজীবীকে হয়রানির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
ভুয়া মামলায় আইনজীবীকে হয়রানির অভিযোগ


জালিয়াত চক্রের ভুয়া মামলায় জড়িয়ে এক আইনজীবীকে হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য ওই আইনজীবীর নাম মফিজুল ইসলাম। তিনি মিথ্যা মামলায় পারিবারিক, সামাজিক ও পেশাগতভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বলে মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে। 
সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে স্থাপিত ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের কার্যালয়ে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. আনোয়ার হোসেন। আইনজীবী মফিজুল ইসলামের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, অ্যাডভোকেট মফিজুল ইসলাম খুলনার কয়রা উপজেলার মসজিদকুড় গ্রামের বাসিন্দা। তিনি একজন আইনজীবী হয়েও জালিয়াতি থেকে রেহাই পাননি। আমি এর সুষ্ঠু তদন্ত ও আইনী প্রতিকার চাই। 
ঘটনার বিবরণ দিয়ে তিনি বলেন, ২০০৮ সালের ১১ ডিসেম্বর অ্যাডভোকেট মফিজুল ইসলাম বিয়ে করেন। ১২ ডিসেম্বর নববধূসহ বাড়িতে আসলে একই গ্রামের মনিরুজ্জামান মনু এবং বাবুরাবাদ গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক গাজীর কন্যা রাবেয়া পারভীন তার বাড়িতে এসে রাবেয়া পারভীনকে মফিজুল ইসলামের বিবাহিত স্ত্রী বলে দাবি করে। ওই বছরের ১৩ ডিসেম্বর কয়রা কোর্টে মনিরুজ্জামান মনুসহ অন্যদের আসামি করে মফিজুল ইসলাম মানহানী মামলা দায়ের করেন।
আসামিপক্ষ অবস্থা বেগতিক দেখে জাল কাবিননামা সৃষ্টি করে ২৩ ডিসেম্বর খুলনা সিএমএম কোর্টে যৌতুকের মামলা করে। ওই মামলায় মফিজুল ইসলাম গ্রেফতার হন। জামিনে মুক্ত হয়ে ভুয়া ওয়ারেন্ট ও জালিয়াতির বিরুদ্ধে মামলা করলে আসামিপক্ষ হাজতবাস করে। এরপর মামলায় ব্যবহৃত কাবিননামায় উল্লেখিত কাজির ঠিকানায় গিয়ে জানা যায় নিকাহনামা সম্পাদনকারী কাজী ভুয়া। একটি জালিয়াত চক্রের যোগসাজসে এসব হচ্ছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়। 

উপরে