ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০
আপডেট : ২৪ মার্চ, ২০২০ ২০:৪৮

করোনাভাইরাস বিস্তাররোধে ‘দৈনিক প্রথম ভোর’ পরিবারের মানবিক উদ্যোগ গ্রহণ

প্রথম ভোর ডেস্ক
করোনাভাইরাস বিস্তাররোধে ‘দৈনিক প্রথম ভোর’ পরিবারের মানবিক উদ্যোগ গ্রহণ

 

বর্তমানে বিশ্বের সর্বত্র এক ভয়ঙ্কর আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাস। ইতোমধ্যে প্রাণঘাতী যে ভাইরাসটির আক্রমণে বিশ্বের প্রায় ১৬ হাজারেরও অধিক লোকের প্রাণহানী ঘটেছে। বহুদেশ এরই মধ্যে কোনও নির্দিষ্ট এলাকা কিংবা গোটা দেশই লকডাউন, আক্রান্ত রোগীদের কোয়ারেন্টাইন, সেলফ হাউজ কোয়ারেন্টাইন, হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তত্ত্বাবধানে আইসোলেশনে রাখার পরও, প্রায় প্রতিদিনই, করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা, কিংবা আক্রান্ত হয়ে অসহায়ভাবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার সংখ্যা ভয় জাগানিয়াভাবে বেড়েই চলেছে। বর্তমানে এর কোনও প্রতিষেধক আবিষ্কার না হওয়ার কারণে, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বের সকল দেশ প্রাথমিক সতর্কতা অবলম্বন করে চলেছে। বৈশ্বিক এ ভয়াবহ পরিস্থিতিতে সরকারী মিডিয়া তালিকাভুক্ত জাতীয় দৈনিক “প্রথম ভোর” পরিবার বাংলাদেশের মতো একটি উন্নয়নশীল দেশে, স্বল্প আয়ের মানুষের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে, আজ  গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে রাজধানীর উত্তরা রাজউক কলেজ, উত্তরা ফ্রেন্ডস ক্লাব, যমুনা ফিউচার পার্ক সংলগ্ন বসুন্ধরা গেট, মস্তুল চেকপোস্ট সংলগ্ন ডিএনসিসি ৪৩ নং ওয়ার্ড (৩০০ ফিট রাস্তা), ভাটারা থানা সংলগ্ন নতুন বাজার এলাকা, ডিএনসিসি ৪২ নং ওয়ার্ড এর বেরাইদ গুদারাঘাটে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করে। দৈনিক “প্রথম ভোর” পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক মোঃ মাসুদ রানার ঐকান্তিক, মহতী প্রচেষ্টা, দিক-নির্দেশনা ও অর্থায়নে এমন সময়োপযোগী উদ্যোগের ভূঁয়সী প্রশংসা করে সমাজের সর্বস্তরের জনগন। সারাজীবন মেহনতি মানুষের পাশে দাঁড়ানো মোঃ মাসুদ রানা জানান, ‘করোনা ভাইরাসকে হয়তো পরাজিত করা সম্ভব নয়, কিন্তু সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমরা সর্বাত্মক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারি। আমরা সকলেই যদি যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেই, কেবল তাহলেই সম্ভব অসহায়,গরীব-দুঃখীদেরকে করোনাভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা করা।” এছাড়াও তিনি মানবতার জননী, বঙ্গবন্ধুকণ্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি বিনীত অনুরোধ জানিয়ে বলেন, “১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে, এদেশের আপামর জনসাধারণ যেমন করে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে, বাংলার স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিলো, ঠিক তেমনি করে আজোও দেশের এ চরম ক্রান্তিলগ্নে এদেশের মানুষ যোগ্য পিতার যোগ্য কণ্যা হিসেবে, জননেত্রীর মুখের পানে তাকিয়ে আছে। তাঁর আহ্বানেই এদেশের ধনাঢ্য-বিশিষ্ট ব্যবসায়ীবৃন্দ ছাড়াও, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ডাকসাইটে নের্তৃবৃন্দ যদি, তাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সামান্য কিংবা আংশিক পরিমাণ অর্থ দিয়েও, মেহনতি মানুষের পাশে দাঁড়ায় তাহলে এ দুঃসময়ে সেটাই হবে পরম পাওয়া। তিনি এদেশের মানুষের কল্যাণে, করোনাভাইরাস থেকে তাদেরকে বাঁচানোর জন্য যে লকডাউনের ঘোষণা করেছেন, তা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার। লকডাউনের সময়কালে খেটে-খাওয়া দিনমজুর, মেহনতি মানুষের অসহায়ত্বের বোবা কান্নার আওয়াজ হয়তো অনেকের কানেই পৌছুবেনা। কিন্তু মানবিক হৃদয়সম্পন্ন প্রধানমন্ত্রী তা অবশ্যই শুনতে পাবেন বলেই, তাঁর কাছে বিনীত অনুরোধ, তিনি যেনো সকল বড় বড় কোম্পানীর কর্ণধারদের প্রতি আহ্বান জানায়, জাতির এ দুঃসময়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবার।’ ‘দৈনিক প্রথম ভোর’ পরিবার কর্তৃক বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন পত্রিকার সহ-সম্পাদক রাশেদুল হক, প্রধান প্রতিবেদক সুজন ফকির, ম্যানেজার আব্দুল্লাহ মিয়া, ফটো সাংবাদিক মোঃ দেলোয়ার হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক মোঃ হাফিজুর রহমান, মফিজুল ইসলাম (শহীদ) ও অন্যান্য প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সমব্যথী কর্মীবৃন্দ।

 

উপরে