ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০
আপডেট : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৬:১৮

দিল্লিতে নালা থেকে বের হচ্ছে একের পর এক মরদেহ!

নিজস্ব প্রতিবেদক
দিল্লিতে নালা থেকে বের হচ্ছে একের পর এক মরদেহ!


ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধী ও সমর্থকদের মধ্যে সহিংসতার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে পুলিশের কাছে এখন পর্যন্ত ১৪৮টি অভিযোগ করা হয়েছে এবং আটক করা হয়েছে ৬৩০ জনকে। ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসছে। শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। রাত পর্যন্ত ৪৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। অথচ আগের দিন বৃহস্পতিবার নিহতের সংখ্যা ছিল ৩৮ জন। নিহত ৪৩ জনের তালিকার বেশিরভাগই মুসলমান।

থমথমে পরিস্থিতির মধ্যেও উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে শুক্রবার কিছু দোকানপাট খোলা ছিল। জানা গেছে, সহিংসতার ঘটনার তদন্তের ভার অপরাধ তদন্ত বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেছে দিল্লি পুলিশ। বিশেষ দু’টি তদন্ত দল এখন বিষয়টি গভীরভাবে তদন্ত করে দেখবে। এদিকে গত সোমবার সংঘর্ষের সময় সামনের সারি থেকে অন্তত আট রাউন্ড গুলি চালানো যে ব্যক্তির ছবি ছড়িয়ে পড়েছে, তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তার পরিচয় নিয়েও ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। এ ঘটনায় আম আদমি পার্টির কাউন্সিলর তাহির হোসেনের দিকে কড়া নজর রেখেছিল দিল্লি পুলিশ। সহিংসতার পেছনে তারও হাত রয়েছে এবং গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে হত্যার নেপথ্যে রয়েছেন বলে সন্দেহ রয়েছে পুলিশের। গত বুধবার ওই গোয়েন্দা কর্মকর্তার দেহ নালা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। গোয়েন্দা কর্মকর্তাসহ আরও কয়েকজনের দেহ নালা থেকে উদ্ধার করা হয়। দিল্লি পুলিশ বলছে, এখন পর্যন্ত ৪৩ জনের মধ্যে ২৬ জনের পরিচয় জানা গেছে। অন্যদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

উপরে